Published On: Mon, May 21st, 2018

ইফতারে মালাই পাটিসাপটা

ইফতারিতে বিভিন্ন প্রকার ঝাল খাবারের পাশাপাশি একটু ভিন্নতা আনতে তৈরি করতে পারেন মালাই পাটিসাপটা। এটি তৈরি করা যেমন সহজ, তেমনি স্বাদেও অতুলনীয়। তাহলে জেনে নিন, কীভাবে তৈরি করবেন মালাই পাটিসাপটা।

ক্ষীরসা বানানোর উপকরণ

১. দুধ এক লিটার

২. খেজুরের গুড় বা চিনি স্বাদমতো

৩. সুজি দুই চামচ

৪. নারিকেল বাটা তিন/চার চা চামচ

পাটিসাপটার ক্ষীরসা তৈরির প্রস্তুত প্রণালি

প্রথমে একটি কড়াই বা প্যানে দুধ নিন এবং দুধ জ্বাল দিয়ে খুব অল্প করে নিন। দুধ অবশ্যই ঘন ঘন নাড়তে হবে, নয়তো নিচে লেগে যাবে। এরপর এর মধ্যে সুজি ও খেজুরের গুড় বা চিনি, বাটা নারিকেল একসঙ্গে দিয়ে নাড়তে থাকুন। এরপর সব উপকরণ দিয়ে অবিরত নাড়তে থাকুন। নয়তো নিচে লেগে যাবে। এরপর ক্ষীরসা অনেক ঘন হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন।

আটার গোলা বানানোর উপকরণ

১. চালের গুঁড়া পরিমাণমতো

২. খেজুরের গুড় বা চিনি দুই চা চামচ

৩. ময়দা এক/দুই কাপ

৪. লবণ সামান্য

৫. গরম পানি প্রয়োজনমতো

পাটিসাপটার আটার গোল তৈরির পদ্ধতি

প্রথমে একটি পাত্রে ওপরে উল্লিখিত সব উপকরণ গরম পানি দিয়ে খুব ভালোভাবে মেশান। খেয়াল রাখবেন, গোলা যেন খুব পাতলা বা ভারী না হয়। এরপর একটি ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে নিন। এরপর এর মধ্যে পরিমাণমতো মিশ্রণ দিন, এরপর রুটির আকৃতি গড়ে নিন। এরপর পাতলা রুটিতে তৈরি করে রাখা ক্ষীরসা দিন। একটি চামচের সাহায্যে পুরো রুটিতে ক্ষীরসা মিশিয়ে দিন এবং একই রকম সাইজে মোড়াতে থাকুন। মোড়ানো হয়ে গেলে নামিয়ে নিন।

মালাই বানানোর উপকরণ

১. দুধ তিন কাপ (ছয় কাপ দুধ জ্বাল দিয়ে তিন কাপ করে নিন)

২. চিনি এক/চার কাপ

৩. ফ্রেশ ক্রিম এক কাপ

মালাই তৈরির প্রস্তুত প্রণালি

প্রথমে চুলায় একটি হাঁড়িতে দুধ নিয়ে নিন। এরপর এর মধ্যে দিয়ে দিন চিনি এবং ফ্রেশ ক্রিম। এরপর উপকরণগুলো ঘন ঘন নেড়ে বলক তুলে নিন। এরপর চুলা থেকে নামিয়ে আগে থেকে তৈরি করে রাখা পাটিসাপটা পিঠার ওপর ঢেলে দিন। এরপর ঠান্ডা করে পরিবেশন করুন মজাদার মালাই পাটিসাপটা।

Read also:

আপনার মুখে দুর্গন্ধ? লবঙ্গ দিয়ে মাত্র ১০ মিনিটে দূর করুন মুখের দুর্গন্ধ

আপনার মুখে দুর্গন্ধ- লবঙ্গকে আমরা কেবল মসলা হিসাবেই চিনি, এর হরেক রকম গুণের কথা সম্পর্কে অনেকেরই ঠিকঠাক মত জানা নেই। অবশ্য আমাদের দেশের বাজার ভরে গেছে নকল লবঙ্গ দিয়ে।

লবঙ্গ থেকে আর নির্যাস বের করে কেবল গুনহীন খোসাটুকু মশলা হিসাবে বাজারে বিক্রি হয় আজকাল যা আপনার জন্য মোটেও উপকারী নয়।

আসল লবঙ্গ চিনে নেয়ার রয়েছে কিছু উপায়, একই সাথে এই আসল লবঙ্গের রয়েছে দারুণ সব উপকারিতা ও ব্যবহার। চলুন, জেনে নিই জাদুকরী এই মশলার গুণের কথা।

১. দাঁত ব্যথা করছে? কয়েকটি লবং থেঁতো করে আক্রান্ত স্থানে দিয়ে রাখুন, দাঁত ব্যথার নিশ্চিত উপশম হবে। লক্ষ্য করলেই দেখবেন, বেশিরভাগ টুথপেস্টই লবঙ্গ থাকার দাবী করে। ঠিক এই কারণেই!

২. হাঁটুতে, পিঠে বা হাড়ের কোন জয়েন্টে ব্যথা? বেশ কিছু লবঙ্গ নিন। সেগুলোকে হালকা আঁচে তাওয়ায় টেলে নিন। এই টেলে নেয়া লবঙ্গকে কাপুরে বেঁধে একটি পুঁটুলি তৈরি করুন। গরম থাকতেই এইcloves-benefit পুঁটুলি দিয়ে আক্রান্ত স্থানে সেঁক দিন। ব্যথা কমে যাবে,

৩. বমি বমি ভাব দূর করতে গুঁড়ো লবঙ্গের সাথে মধু মিশিয়ে খেয়ে নিন। আরাম পাবেন।

৪. সাধারণ ঠাণ্ডা লাগা হোক কিংবা অ্যাজমা, সাইনাস ইত্যাদির সমস্যা; দিনে কয়েক কাপ লবঙ্গ চা খেলে রোগের উপশম হবে। লবঙ্গ পানিতে ফুটিয়ে চা তৈরি করে নেবেন, ঠিক যেভাবে আদা চা তৈরি করেন।

৫. প্রচণ্ড মাথা ব্যথা করছে? কয়েক ফোঁটা লবঙ্গ তেল একটি কাপড়ে বা টিস্যুতে দিয়ে কপালের ওপরে দিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট রেখে সরিয়ে ফেলুন। মাথা ব্যথা কমবে।

৬. মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে লবঙ্গ তুলনাহীন। কয়েকটি মুখে ফেলে চিবালেই আপনার নিঃশ্বাস হয়ে উঠবে তরতাজা।

৭. প্রচণ্ড স্ট্রেস ও উৎকণ্ঠা অনুভব করছেন? এক টুকরো লবঙ্গ মুখে ফেলে চুষে চুষে খেয়ে ফেলুন। পান করতে পারেন লবঙ্গের চাও। মেজাজ ফুরফুরে হয়ে উঠবে।

৮. ব্রণ দূর করতে লবঙ্গ তুলনা নিন। তাজা লবঙ্গের গুঁড়ো সামান্য মধুর সাথে মিশিয়ে ব্রণের ওপরে দিয়ে রাখুন। ব্রণ দূর হবে।

৯. লবঙ্গের তেল আপনার নিয়মিত ব্যবহারের তেলের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করলে চুল পড়া কমবে এবং চুলের ঘনত্ব বৃদ্ধি পাবে।

১০. গর্ভবতী মায়েরা সকালের বমি বমি ভাব দূর করতে লবঙ্গ চুষতে পারেন। শুধু লবঙ্গ মুখে ভালো না লাগলে সামান্য গুড় মিশিয়ে নিতে পারেন। সকাল বেলাটায় অনেক স্বস্তি বোধ করবেন

About the Author

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>